Responsive Ad Slot

বাংলাদেশ রেলওয়ে সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন - উত্তর - Bangladesh Railway Important Questions - Answers

Sunday, March 3, 2024

/ by Admin

বাংলাদেশ রেলওয়ে সম্পর্কিত বেশি গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর:

১. বাংলাদেশে প্রথম কবে রেলপথ চালু হয় ?

উত্তরঃ ১৮৬২ সালে দর্শনায়।

২. বাংলাদেশ ভূখণ্ডে নির্মিত প্রথম মিটার গেজ রেলপথ কোনটি ?

উত্তরঃ ঢাকা নারায়ণগঞ্জ ।

৩. বাংলাদেশের কোথায় রেলওয়ে রজ্জুপথ আছে ?

উত্তরঃ সিলেটে।

৪. কবে বাংলাদেশ থেকে রেলওয়ে বোর্ড বিলুপ্ত করা হয়?

উত্তরঃ ৩ জুন, ১৯৮২ সালে।

৫. বাংলাদেশে বর্তমানে দীর্ঘতম রেল ও সড়ক সেতু কোনটি?

উত্তরঃ পদ্মা বহুমুখী সেতু।

৭. কখন বাংলাদেশে আন্তনগর ট্রেন সার্ভিস চালু হয়?

উত্তরঃ ১৯৮৫ সালে ।

৮. ঢাকাটঙ্গীর মধ্যে শাটলট্রেন চালু হয় কবে?

উত্তরঃ ১ সেপ্টেম্বর, ২০০২।

৯. বাংলাদেশে মোট রেল স্টেশন কতটি?

উত্তরঃ ৪৮৯ টি।

১০. বাংলাদেশে ব্রডগেজ রেল স্টেশনের সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ১৫২টি ।

১১. বাংলাদেশে মিটারগেজ রেল স্টেশনের সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ৩৩৭টি

১২. বাংলাদেশ রেলওয়ে সদর দফতর কোথায়?

উত্তরঃ ঢাকা ।

১৩. বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলীয় সদর দপ্তর কোথায়?

উত্তরঃ চট্টগ্রামে ।

১৪. রেল পুলিশকে সাধারণভাবে কী বলা হয়?

উত্তরঃ জিআরপি

১৫. বাংলাদেশ কয়টি জিআরপি অঞ্চলে বিভক্ত ও কী কী?

উত্তরঃ ২টি।

১৬. সারা দেশে চলাচলকারী ট্রেনের সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ৩৫৮টি।

১৭. সারা দেশে আন্তঃনগর চলাচলকারী ট্রেনের সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ৯৬ টি।

১৮. সারা দেশে মেইল এক্সপ্রেস ডেমু চলাচলকারী ট্রেনের সংখ্যাকতটি?

উত্তরঃ ১২০টি।

১৯. সারা দেশে লোকাল চলাচলকারী ট্রেনের সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ১৩৫টি।

২০. সারা দেশে রেলসেতুর সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ৩,৬৫০টি।

২১. সারা দেশে রেল লেবেল ক্রসিং সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ১,৬১০ টি।

২২. সারা দেশে ইটিকেটিং সেবা রেলস্টেশনের সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ৬টি (ঢাকা, ঢাকা বিমানবন্দর, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, সিলেট ও খুলনা)

২৩. ইটিকেটিং সেবা রেলস্টেশনগুলো কবে থেকে চালু হয়?

উত্তরঃ ২৯ মে, ২০১২ সালে।

২৪. সারা দেশে কম্পিউটারাইজড ট্রেন ইনফরমেশন ডিসপ্লে সিস্টেম রেল স্টেশনের সংখ্যা কতটি?

উত্তরঃ ৫টি। (ঢাকা, ঢাকা বিমানবন্দর, চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও সিলেট) ।

২৫. রেলপথে ঢাকার সাথে পঞ্চগড়ের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ৬৩৯ কি.মি ।

২৬. রেলপথে ঢাকার সাথে খুলনার দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ৫৩৭ কি.মি ।

২৭. রেলপথে ঢাকার সাথে দিনাজপুরের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ৪৯০ কি.মি ।

২৮. রেলপথে ঢাকার সাথে চট্টগ্রামের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ৩৪৬ কি.মি।

২৯. রেলপথে ঢাকার সাথে সিলেটের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ৩১৯ কি.মি ।

৩০.রেলপথে ঢাকার সাথে রাজশাহীর দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ৩৪৩ কি.মি ।

৩১. রেলপথে ঢাকার সাথে নোয়াখালীর দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ২৬৩ কি.মি ৷

৩২. রেলপথে ঢাকার সাথে কুমিল্লার দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ১৯১ কি.মি ।

৩৩. রেলপথে ঢাকার সাথে জামালপুরের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ১৭৭ কি.মি ।

৩৪. রেলপথে ঢাকার সাথে নারায়ণগঞ্জের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ২৩ কি.মি ।

৩৫. বাংলাদেশ ন্যাশনাল রেলওয়ে অথরিটির (BRA) সার্বিক সদর দফতর কোথায় অবস্থিত?

উত্তরঃ ঢাকায় ৷

৩৬. বাংলাদেশে প্রথম মহিলা ট্রেন চালক কে?

উত্তরঃ সালমা খাতুন ।

৩৭. বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়ার্কসপ কোথায় অবস্থিত?

উত্তরঃ সৈয়দপুর ও চট্টগ্রামের পাহাড়তলীতে।

৩৮. বাংলাদেশের কোথায় কোথায় রেলওয়ের কারখানা আছে?

উত্তরঃ পাহাড়তলী, ঢাকা, সৈয়দপুর। সবচেয়ে বড় কারখানাটি সৈয়দপুর। এছাড়া পার্বতীপুরে বাংলাদেশে

৩৯. আখাউড়াআগরতলা রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের উদবোধন করা হয় কবে?

উত্তরঃ ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সালে।

৪০. কুলাউড়াশাহবাজপুর রেল পুনর্বাসন প্রকল্প উদবোধন করা হয় কবে?

উত্তরঃ ২০১৫ সালের ৬ জুন।

৪১. ঢাকাটঙ্গী তৃতীয় ও চতুর্থ ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন প্রকল্পের উদ্‌বোধন করা হয় কবে?

উত্তরঃ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩।

৪২. টঙ্গীজয়দেবপুর ডুয়েলগেজ ডাবল লাইন নির্মাণ প্রকল্পের উদবোধন করা হয় কবে?

উত্তরঃ ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮।

৪৩. মিটার ও ব্রডগেজ রেলপথ কোন নদী দ্বারা বিভক্ত?

উত্তরঃ যমুনা (পূর্বভাগ সম্পূর্ণ মিটারগেজ ও পশ্চিম ভাগে ব্রডগেজ ও মিটারগেজ)।

৪৪. কুষ্টিয়াগোয়ালন্দ রেলপথ নির্মাণ করে কোন সরকার?

উত্তরঃ ইংরেজ সরকার।

৪৫. বেনাপোলপেট্রোপোল কী?

উত্তরঃ বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল পথ !

৪৬. পূর্বাঞ্চলে জিআরপির সদর দপ্তর কোথায়?

উত্তরঃ সৈয়দপুর (নীলফামারী)।

৪৭. বাংলাদেশ রেলওয়ে থানা কতটি?

উত্তরঃ পশ্চিমাঞ্চল ১২টি।

৪৮. পূর্বাঞ্চলের রেলওয়ে থানাগুলো কী কী?

উত্তরঃ লাকসাম, চাঁদপুর, আখাউড়া, শ্রীমঙ্গল, কুলাউড়া, ভৈরব, ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট ও জামালপুর।

৪৯. পশ্চিমাঞ্চলের রেলওয়ে থানাগুলো কী কী?

উত্তরঃ সৈয়দপুর, দিনাজপুর, পার্বতীপুর, লালমনিরহাট, রাজশাহী, বোনারপাড়া, শান্তাহার, ঈশ্বরদী, সিরাজগঞ্জ, পোড়াদহ, রাজবাড়ী ও খুলনা ।

৫০. বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় রেলওয়ে স্টেশন কোনটি?

উত্তরঃ কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন

৫১. রেল পুলিশের নাম কী?

উত্তরঃ G. R. P পুলিশ।

৫২. G. R. P পুলিশের সর্বোচ্চ পদের নাম কী?

উত্তরঃ সহকারী ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ ।

৫৩. ৬০এর দশকের মধ্য পর্যন্ত এদেশে কোন যান একচেটিয়াভাবে পরিবহন ব্যবস্থা হিসেবে বিবেচিত ছিল?

উত্তরঃ রেলওয়ে ।

৫৪. ঢাকারাজশাহী লাইনে কী কী ট্রেন চালু আছে?

উত্তরঃ সিল্কসিটি ট্রেন সার্ভিস ।

৫৫. বাংলাদেশের পরিবহন নেটওয়ার্ক গড়ে উঠেছে কোনগুলোর সমন্বয়ে?

উত্তরঃ রেলপথ, সড়কপথ, নৌপথ ও আকাশ পথের সমন্বয়ে ।

৫৬. ব্রডগেজ রেলপথ কোন নদী দ্বারা বিভক্ত?

উত্তরঃ যমুনা (খুলনা ও রাজশাহী)

৫৭. মিটারগেজ লাইনের দুই লাইনের মাঝের দূরত্ব কত?

উত্তরঃ ৩৩.৩/৪। ব্রডগেজ লাইনের প্রস্থ কত? ৫’ ৬’।

৫৮. ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে রেলপথের পরিমাণ কত ছিল?

উত্তরঃ ২,৮৫৮ কিলোমিটার ।

৫৯. বাংলাদেশে রেলওয়ের কী কী ধরনের লাইন আছে?

উত্তরঃ ব্রডগেজ, মিটারগেজ ও ডুয়েল গেজ ।

৬০. গোয়ালন্দ ঘাট পর্যন্ত রেলগাড়ি চলাচল শুরু করে কত সালে?

উত্তরঃ ১৮৭১ সালে।

৬১. কুষ্টিয়াগোয়ালন্দ রেল লাইনের নাম কী ছিল?

উত্তরঃ ইস্টার্ন বেঙ্গল স্টেট রেলওয়ে।

৬২. কনটেইনার সার্ভিস চালু হয় কত সালে?

উত্তরঃ ১৯৮৭ সালে, ঢাকা ও চট্টগ্রামের মধ্যে।

৬৩. ঢাকাজামালপুর সেকশনে নয়া কমিউটর ট্রেন চালু হয় কত সাল থেকে?

উত্তরঃ ১ আগস্ট, ১৯৯১।

৬৪. বাংলাদেশে মিটারগেজ রেলপথ কোথায় ও কত সালে চালু হয়ে?

উত্তরঃ ১৮৭৪ থেকে ১৮৭৯ সালের মধ্যে সারা থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত নর্দান বেঙ্গল স্টেট রেলওয়ের অধীনে প্রথম মিটারগেজ রেলপথ চালু হয়।

৬৫. বাংলাদেশের প্রথম কখন ও কোথায় ন্যারোগেজ রেলপথ চালু হয়?

উত্তরঃ ১৯৯৮ সালের ১০ জুন রূপসাবাগেরহাট পর্যন্ত ১৯.৭৫ মাইল দীর্ঘ ন্যারোগেজ রেলপথ চালু হয়।

৬৬. পদ্মা নদীর উপর বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেলসেতুর দৈর্ঘ্য কত?

উত্তরঃ ৬১৫০ মিটার

৬৭. কুষ্টিয়াগোয়ালন্দ রেলপথ নির্মাণ হয় কত সালে?

উত্তরঃ ১৮৭১ সালে।

৬৮. ঢাকা নারায়ণগঞ্জ রেলপথ কত সালে হয়?

উত্তরঃ ১৮৮৫ সালে ।

৬৯. বাংলাদেশ ভূখণ্ডে নির্মিত প্রথম মিটার গেজ রেলপথ কোনটি?

উত্তরঃ ঢাকা

৭০. বাংলাদেশের সর্বপ্রথম নির্মিত মিটারগেজ রেলপথ কোনটি?

উত্তরঃ ঢাকানারায়ণগঞ্জ ।

৭১. রেল যোগাযোগ আওতাভুক্ত হওয়া বাংলাদেশের প্রথম জেলা কোনটি?

উত্তরঃ কুষ্টিয়া ।

৭২. মধ্য উনবিংশ শতাব্দীতে সবচেয়ে বেশি প্রচলিত যোগাযোগ মাধ্যম কী ছিল?

উত্তরঃ রেলওয়ে।

৭৩. বাংলাদেশভারত যাত্রীবাহী ট্রেন কত তারিখে পরীক্ষামূলকভাবে চালু হয়?

উত্তরঃ ১৪ এপ্রিল, ২০০৮ সালে।

৭৪. রেলপথ বিভাগ সৃষ্টি করা হয় কবে?

উত্তরঃ ২৮ এপ্রিল, ২০১১।

৭৫. রেলপথ বিভাগকে কবে ‘রেলপথ মন্ত্রণালয়’ নামকরণ করা হয়?

উত্তরঃ ডিসেম্বর, ২০১১।

৭৬. রেলপথ মন্ত্রণালয়ের ইংরেজি নাম কী?

উত্তরঃ Ministry of Railways.

৭৮. রেলপথ মন্ত্রণালয়ের প্রথম মন্ত্রী কে?

উত্তরঃ সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

৭৯. রেলপথ মন্ত্রণালয়ের বর্তমান মন্ত্রীর নাম কী?

উত্তরঃ নূরুল ইসলাম সুজন।

৮০. বাংলাদেশের বর্তমান রেলপথ মন্ত্রণালয় সচিবের নাম কী?

উত্তরঃ মো. হুমায়ন কবীর

৮১. রেলওয়ের বর্তমান মহাপরিচালক নাম কী

উত্তরঃ মো: কামরুল আহসান।

৮২. একাদশ জাতীয় সংসদের রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির নাম কী?

উত্তরঃ এ. বি এম ফজলে করিম। (চট্টগ্রাম ৬ আসনের সংসদ সদস্য)।

৮৩. রেলপথ মন্ত্রণালয়ের অধীন সংস্থা বা সংগঠন কী কী?

উত্তরঃ বাংলাদেশ রেলওয়ে, রেল পরিদর্শন অধিদপ্তর, বাংলাদেশ রেলওয়ের সরকারি পরিদর্শকের কার্যালয় প্রভৃতি ।

৮৪. বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ (BRA) কবে গঠন করা হয়?

উত্তরঃ ১২ আগস্ট, ১৯৯৫।

৮৫. BRA এর পূর্ণরূপ কী?

উত্তরঃ Bangladesh Railway Authority.

৮৬. গোপালগঞ্জ জেলায় রোপথ চালু হয়

উত্তরঃ ১ নভেম্বর, ২০১৮ সালে।

৮৭. গোপালগঞ্জরাজশাহী রেলরুটে টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি যাত্রা শুরু করে

উত্তরঃ ২ নভেম্বর, ২০১৮ সালে ।

৮৯. দেশের দীর্ঘতম রেল রুট ঢাকাপঞ্চগড় এর মধ্যে সরাসরি আন্তঃনগর ট্রেন সার্ভিস চালু হয়

উত্তরঃ ১০ নভেম্বর, ২০১৮ সালে ।

৯০. প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যমুনা নদীর উপর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব রেলওয়ে সেতুর নির্মাণকাজ উদ্বোধন করেন কবে?

উত্তরঃ ২৯ নভেম্বর ২০২০ ।

৯১. প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কবে পদ্মা সেতুতে রেলসংযোগ প্রকল্প উদবোধন করেন?

উত্তরঃ ১৪ অক্টোবর, ২০১৮ সালে

৯২. পাবনাঈশ্বরদী রেলপথ উদ্বোধন করা হয় কবে?

উত্তরঃ ১৪ জুলাই, ২০১৮ ।

৯৩. ঢাকায় নির্মাণাধীন মেট্রোরেলের দৈর্ঘ্য কত কিমি?—

উত্তরঃ ২১.২৬ কিমি (উত্তরা থেকে কমল।পুর পর্যন্ত)।

৯৪. মেট্রোরেলের প্রথম স্প্যান ২২ এবং ২৩ নম্বর পিয়ারকে যুক্ত করে বসানো হয় কবে?

উত্তরঃ ৭ এপ্রিল, ২০১৮ সালে।

৯৫. বাংলাদেশের কোন জেলায় সবচেয়ে দীর্ঘ রেলপথ রয়েছে?

উত্তরঃ চট্টগ্রাম (১৭৮.৪৫ কিমি)।

৯৬. দোহাজারীকক্সবাজার রেলপথ নির্মাণের প্রথম ধাপের কাজ শুরু হয় কবে?

উত্তরঃ জুলাই ২০১৮ সালে ।

৯৭. আগারগাঁওউত্তরা মেট্রোরেলের উদ্বোধন করা হয়

উত্তরঃ ২৮ ডিসেম্বর ২০২২।

৯৮. পদ্মা সেতুর রেল সংযোগের ফলক কবে উন্মোচন করা হয়?

উত্তরঃ ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ সালে ।

৯৯. বাংলাদেশের রেলওয়ে কয়টি অঞ্চলে বিভক্ত?

উত্তরঃ দুটি (পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চল)।

১০০. বাংলাদেশ রেলওয়ের সার্বিক সদর দপ্তর কোথায় অবস্থিত?

উত্তরঃ ১৬, আব্দুর গণি রোড, রেলভবন, রমনা, ঢাকা।

১০১. বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্ব ও পশ্চিম অঞ্চলের সদর দপ্তর কোথায়?

উত্তরঃ যথাক্রমে চট্টগ্রাম ও রাজশাহী।

১০২. কমলাপুর রেলস্টেশনের স্থপতি কে?

উত্তরঃ বব বুই।

১০৩. বাংলাদেশে সর্ববৃহৎ রেলওয়ে স্টেশন কোনটি?

উত্তরঃ কমলাপুর, ঢাকা।

১০৪. বাংলাদেশের দীর্ঘতম রেলওয়ে প্লাটফর্মটি কোথায়?

উত্তরঃ কমলাপুর, ঢাকা।

১০৫. সৈয়দপুর, বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্ববৃহৎ কারখানা কোথায়?

উত্তরঃ নীলফামারী (প্রতিষ্ঠান ১৮৭০ সালে)।

১০৬. কুষ্টিয়া থেকে গোয়ালন্দ ঘাট পর্যন্ত রেল লাইন উদ্‌বোধন করা হয় কবে?

উত্তরঃ ১ জানুয়ারি ১৮৭১ ।

১০৭. চিলাহাটি রেলওয়ে জংশনটি কোন জেলায় অবস্থিত?

উত্তরঃ নীলফামারী ।

১০৮. বাংলাদেশের আন্তঃনগর ট্রেন সার্ভিস চালু হয় কবে?

উত্তরঃ ১৯৮৫ সালে।

১০৯. কত বছর বয়সি শিশু বিনা ভাড়ায় ভ্রমণ করতে পারে?

উত্তরঃ ৩ বছর ।

১১০. বাংলায় প্রথম রেলপথ চালু হয়েছিল কোথা হতে কোথা পর্যন্ত?

উত্তরঃ হাওড়াহুগলি ।

১১১. বঙ্গবন্ধু সেতুতে কোন ধরনের রেল লাইনের ব্যবস্থা আছে?

উত্তরঃ ডুয়েল গেজ ।

১১২. বাংলাদেশে কত প্রকার রেলপথ আছে ও কী কী?

উত্তরঃ তিন প্রকার। ব্রডগেজ, মিটার গেজ ও ডুয়েল গেজ।

১১৩. বর্তমানে বাংলাদেশে রেল পথের দৈর্ঘ্য কত?

উত্তরঃ ৩০৯১ কিমি ।

১১৪. দেশে কী পরিমাণ মিটার গেজ রেলপথ আছে?

উত্তরঃ ১৬৭৯ কিমি ।

১১৫. দেশে কী পরিমাণ ডুয়েল গেজ রেলপথ আছে?

উত্তরঃ ৫৩৩ কিমি ।

১১৬. দেশে কী পরিমাণ ব্রড গেজ রেলপথ আছে?

উত্তরঃ ৮৭৯ কিমি।

১১৭. বাংলাদেশের কতটি জেলায় রেলপথ রয়েছে?

উত্তরঃ ৪৪টি জেলায় ।

১১৮. বাংলাদেশের কতটি জেলায় রেলপথ নেই?

উত্তরঃ ২০টি। মেহেরপুর মানিকগঞ্জ, সুনামগঞ্জ, নড়াইল, লক্ষ্মীপুর, মাগুরা, বরিশাল, পটুয়াখালী, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, রাঙ্গামাটি, ভোলা, ঝালকাঠি, বরগুনা, পিরোজপুর, শেরপুর, শরীয়তপুর, মাদারীপুর, কক্সবাজার ও মুন্সিগঞ্জ ।

১২০. হার্ডিঞ্জ ব্রীজের দৈর্ঘ্য কত?

উত্তরঃ ৫,৮৯৪ ফুট।

১২১. হার্ডিঞ্জ ব্রীজ কত সালে নির্মিত হয়?

উত্তরঃ ১৯১৫ সালে।

১২২. হার্ডিঞ্জ ব্রীজ কে নির্মাণ করেন?

উত্তরঃ লর্ড হার্ডিঞ্জ ।

১২৩. হার্ডিঞ্জ ব্রীজ এর প্রকৌশলী কে ছিলেন?

উত্তরঃ আলেক্সন্ডার মেয়াদওসরেণ্ডেল।

১২৪. বাংলাদেশের রেল সংস্থার নাম কী?

উত্তরঃ বাংলাদেশ রেলওয়ে। (বি. আর)।

No comments

Post a Comment

Leave with comments

Don't Miss
© all rights reserved
made with by templateszoo